অযূর ফযীলত || রাহে সুন্নাত ব্লগ || Rahe Sunnat Blog

ইসলাম প্রতিদিন জানা-অজানা রাহে তরীকত/আত্মশুদ্ধি সংবাদ

অযূর ফযীলত


হযরত রাসূলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম ইরশাদ করেছেন, যে ঈমানদার উযূ করবে, সে যখন মুখ ধৌত করবে তখন পানির ফোঁটার সঙ্গে সঙ্গে বা শেষ ফোঁটার সঙ্গে সঙ্গে চোখের দ্বারা যতো (ছগীরা) গুনাহ হয়েছে সব মাফ হয়ে যাবেতারপর যখন দুহাত কনুই পর্যন্ত ধুবে, তখন পানির শেষ ফোঁটার সঙ্গে সঙ্গে হাতের দ্বারা যতো (ছগীরা) গুনাহ হয়েছে সব মাফ হয়ে যাবেতারপর যখন উভয় পা ধৌত করবে তখন পানির শেষ ফোঁটার সঙ্গে সঙ্গে পায়ের দ্বারা যতো ছগীরা গুনাহ হয়েছে সব মাফ হয়ে যাবে এবং সে গুনাহ থেকে সম্পূর্ণরূপে পবিত্র হয়ে যাবে। –সহীহ মুসলিম, হাদীস নং ২৪৪; জামে তিরমিযী, হাদীস নং ২; সহীহ ইবনে খুযাইমা, হাদীস ৪; সহীহ ইবনে হিব্বান, হাদীস ১০৪০; শুআবুল ঈমান, বায়হাকী, হাদীস নং ২৪৭৬

হযরত রাসূলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম ইরশাদ করেছেন, যে ব্যক্তি উযূ শুরু করার সময় বিসমিল্লাহ পড়বে এবং উযূ শেষ করে এই দুআ পড়বে-
أَشْهَدُ أَنْ لَّاۤاِلٰهَ إِلَّا اللهُ وَحْدَهٗ لَا شَرِيْكَ لَهٗ وَاَشْهَدُ أَنَّ مُحَمَّدًا عَبْدُهٗ وَرَسُوْلُهٗ. اَللّٰهُمَّ اجْعَلْنِىْ مِنَ التَّوَّابِيْنَ وَاجْعَلْنِىْ مِنَ الْمُتَطَهِّرِيْنَ.
তার জন্য জান্নাতের আটটি দরজা খুলে দেয়া হবেসে ইচ্ছামতো যে কোনো দরজা দিয়ে জান্নাতে প্রবেশ করতে পারবেসহীহ মুসলিম, হাদীস নং ২৩৪; জামে তিরমিযী, হাদীস নং ৫৫
          আর যদি এরূপ উযূ করার পর অন্তরের একাগ্রতার সঙ্গে দুই রাকআত তাহিয়্যাতুল উযূ পড়ে, তাহলে নামায থেকে ফারেগ হওয়ার পর তার সমস্ত সগীরা গুনাহ মাফ করে দেয়া হয় এবং সে নবজাত শিশুর মতো নিষ্পাপ হয়ে যায়বেহেশতী জেওর উর্দু ১/৯২ পৃ.
          যে উযূ করার সময় দুরূদ শরীফ পাঠ করবে না, তার উযূ কামেল হবে না। –বেহেশতী জেওর উর্দু : ১/৯২ পৃ.

অযূর ফযীলত Tasnif Media Blog

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *