জুমআর দিনের আমল

কামেল ঈমানের বৈশিষ্ট্যসমূহ | Characteristics of Kamel Iman

আত্মশুদ্ধি ইসলাম প্রতিদিন পরিবার ও গোষ্ঠি মুআশারাত সংবাদ সংস্কৃতি

কামেল ঈমানের বৈশিষ্ট্যসমূহ

কামেল ঈমানের বৈশিষ্ট্যসমূহআল্লাহ তায়ালা ইরশাদ করেন : তোমরা সর্বশ্রেষ্ঠ জাতি মানুষের কল্যাণের জন্যই তোমাদেরকে সৃষ্টি করা হয়েছে। তোমরা সৎ কাজের আদেশ করবে, অসৎ কাজ থেকে নিষেধ করবে এবং আল্লাহ উপর ঈমান রাখবে। -(সূরা আল ইমরান-১১০)

يا رسول الله ما الايمان ؟ قال ادا سرتك حسنتك وساءتك سيئتك فانت مؤمن

হাদীস শরিফে বর্ণিত আছে-জনৈক সাহাবী জিজ্ঞাসা করলেন: ইয়া রাসুলাল্লাহ! ঈমান কি জিনিস? জবাবে রাসূলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম বলেন, যদি তোমার নেক কাজ তোমাকে সন্তুষ্ট করে আর তোমার অসৎ কাজ তোমাকে ব্যথিত করে তবেই বুঝে নাও যে তুমি মুমিন। (মুসনাদে আহমাদ)

অন্তর অসুস্থ্য হওয়ার আলামত

নেক আমল করলে যদি অন্তর খুশি হয়, আর মন্দ কাজের দ্বারা যদি অন্তরে কষ্ট অনুভূত হয় তবে এটা পূর্ণ ঈমানের আলামত। আর কারো যদি সুগন্ধ-দুর্গন্ধের উপলব্ধি করার অনুভূতি থাকে, মিষ্ট ও তিক্ত জিনিসের স্বাদ বুঝতে পারে, তাহলে এটাই আলামত যে, তার ঘ্রাণ শক্তি ও আস্বাদন শক্তি সূস্থ্য আছে। পক্ষান্তরে যদি তার সুগন্ধ- দুর্গন্ধের  অনুভব না হয়, তাহলে বুঝতে হবে সে অসুস্থ্য। সে ঠান্ডার রোগে আক্রান্ত। 

অনুরূপভাবে নেক কাজ করলে অন্তর যদি আনন্দিত না হয় কিংবা গোনাহ আর অন্যায় করলে যদি অন্তর ব্যথিত না হয়, তাহলেও বুঝতে হবে যে, তার অন্তরে রোগ আছে। কাজেই এ ব্যক্তির অন্তরের চিকিৎসা করতে হবে। 

আল্লাহ তাআলা আমাদের সবাইকে কামেল মুমিন হিসাবে কবুল করুন। আমীন

কুরআনুল কারিমের কথা প্রবন্ধটি পড়তে ক্লিক করুন
আরো জানতে ভিজিট করুন আমাদের ওয়েব সাইট রাহে সুন্নাত ব্লগ

Leave a Reply

Your email address will not be published.