সুন্নাতের উপকারিতা

সুন্নাতের উপকারিতা

ইসলাম প্রতিদিন
সুন্নাতের উপকারিতা

সুন্নাতের উপকারিতা :

একজন দূর্বল মানুষও যদি শক্তিবর্ধক ঔষধ সেবন করতে শুরু করে তখন তার মধ্যে শক্তি সঞ্চার হয়। সামান্য ১টি ট্যাবলেট খেলে যদি জ্বর চলে যায়, ইনজিকশন দিলে যদি শরীরে শক্তি আসে, তাহলে সুন্নাতের ট্যাবলেট সেবন করলে কি উম্মত সুস্থ্য হবে না? অন্তরে শান্তি লাগবে না?

যেমনিভাবে শারীরিক ঔষধ নিয়মতান্ত্রিক ভাবে সেবন করতে হয়, অনুরূপভাবে গুরুত্বের সাথে ধারাবাহিকভাবে সুন্নাতের উপর আমল করতে হবে যেন পুরা জিন্দেগী সুন্নাতের মোয়াফেক হয়ে যায়। সুন্নাতের রঙ্গে রঙ্গীন হয়ে যায়।

প্রথমত ঐ সমস্ত সুন্নাতের উপর আমল শুরু করে  দিতে হবে যে গুলোর আমল করলে কেউ বাধা বাধা দিবে না। এতে অন্যান্য সুন্নাতের উপর আমল করার শক্তিও হিম্মত সৃষ্টি হবে। ঘুমানোর সুন্নাতের উপর আমল করলে কে আছে এমন যে বাধা দিবে?

ইস্তিঞ্জা খানায় যাওয়ার সুন্নাতের উপর আমল করলে কে বাঁধা দিবে? খানা খাওয়া ও পানি পান করার সুন্নাতের উপর আমল করলে কে আছে যে প্রতিবন্ধকতা সৃষ্টি করবে। এই সমস্ত সুন্নাতের উপর যদি আমল শুরু করে দাও তাহলে অন্যান্য সুন্নাত ওয়াজিব তথা  শরয়ী বিধান সমূহের উপর আমল করা সহজ হয়ে যাবে।

সুন্নাতের ইহতিমাম

শরীয়তের বিধানাবলী হলো হুকুকের সমষ্টি; আল্লাহ এবং বান্দার হক অর্থাৎ আল্লাহর হক এবং বান্দার হক আদায়ের নাম শরীয়ত। আর হুদুদ হলো সুন্নাতের নাম, সুন্নাতের মাধ্যমে জানা যাবে কোন্ হকের সীমা কতটুকু। শরীয়তের প্রতিটি ক্ষেত্রে সুন্নাতের অনুসরণ করলে জীবনের সব কর্মকান্ডই ইবাদত হিসাবে গন্য হবে। কাজেই প্রত্যেক ইবাদত ও সকল কাজে রাসূলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লামের পদাঙ্ক অনুসরণ করা মুসলিম জাতির একান্ত কর্তব্য।

হযরত ইবনে আতাউল্লাহ ইস্কান্দারী রহ. অত্যন্ত উচুঁ স্তরের বিজ্ঞ বুযূর্গ ছিলেন। তিনি বলেন, তোমরা রাসূলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লামের যে পরিমাণ অনুসরণ করবে সে পরিমাণ কল্যাণের দিকে অগ্রসর হবে। তাঁর সুন্নাতের অনুসরণ থেকে যে পরিমাণ দূরত্ব হবে সে পরিমাণ ধ্বংস হবে।

হযরত বলেন, রাসূলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লামের অনুসরণ ছাড়া আল্লাহর দরবারে মাকবুল হওয়ার সকল রাস্তা বন্ধ। রাসূলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লামের পরিপূর্ণ অনকরণ ব্যাতিরেকে কেউই মুক্তি লাভ করতে পারবে না।

মুহিউসসুন্নাহ হযরতওয়ালা হারদুঈ রহ. বলেন, আমলে সালিহ- এর অপর নাম হলো সুন্নাত। যে আমল সুন্নাত মুতাবেক হয় সেটাই আমলে সালিহ। আমলে সালিহ-এর হাকীকত ও মানদণ্ড হচ্ছে সুন্নাত। যে আমল সুন্নাত অনুযায়ী হবে সেটা সালিহ নতুবা গায়রে সালিহ।

মাহে জিলহজ্ব ও কুরবানীর ফযীলত করণীয় ও বর্জনীয় || রাহে সুন্নাত ব্লগ

উলামায়ে কেরাম : মর্যাদা, দা‌য়িত্ব ও কর্তব্য

কুরআনুল কারিমের কথা প্রবন্ধটি পড়তে ক্লিক করুন
আরো জানতে ভিজিট করুন আমাদের ওয়েব সাইট রাহে সুন্নাত ব্লগ

Leave a Reply

Your email address will not be published.