হজ্বের গুরুত্ব ও ফযীলত

হজ্বের গুরুত্ব ও ফযীলত। মাওলানা আবু তাসনীম উমাইর

ইসলাম প্রতিদিন

হজ্বের গুরুত্ব ও ফযীলত

আল্লাহ তা‘আলা ইরশাদ করেন,

وَ لِلّٰهِ عَلَی النَّاسِ حِجُّ الْبَیْتِ مَنِ اسْتَطَاعَ اِلَیْهِ سَبِیْلًا

অর্থ : মানুষের উপর আল্লাহর উদ্দেশ্যে বাইতুল্লাহর হজ্ব ফরয করা হয়েছে, যারা সেখান পর্যন্ত যাওয়ার সামর্থ্য রাখে। (আলে ইমরান, আয়াত ৯৭)

রাসূলে মকবূল সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম ইরশাদ করেন,

مَنْ حَجَّ لِلّٰهِ فَلَمْ يَرْفَثْ وَلَمْ يَفْسُقْ رَجَعَ كَيَوْمٍ وَّلَدَتْهُ اُمُّهُ ـ

অর্থ : যে ব্যক্তি আল্লাহর উদ্দেশ্যে হজ্বে গিয়ে কাউকেও গালি না দেয় এবং কোনো ফাসেকী কাজ না করে, তবে সে এরূপ নিষ্পাপ অবস্থায় ফিরে আসে, যেন ঐ দিনই তার মা তাকে জন্ম দিয়েছে। (সহীহ বুখারী, হাদীস নং ১৪৬১)

রাসূলে মকবূল সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম আরো ইরশাদ করেন,

مَنْ لَّمْ يَمْنَعْهُ مِنَ الْحَجِّ حَاجَةٌ ظَاهِرَةٌ اَوْ سُلْطَانٌ جَائِرٌ اَوْ مَرَضٌ حَابِسٌ فَمَاتَ وَلَمْ يَحُجَّ فَلْيَمُتْ اِنْ شَاءَ يَهُوْدِيًّا وَّاِنْ شَاءَ نَصْرَانِيًّا

অর্থ : যে ব্যক্তি হজ্ব করতে এমন কোনো প্রকাশ্য বিশেষ প্রয়োজন কিংবা যালেম বাদশাহ অথবা প্রতিরোধক রোগ যদি প্রতিবন্ধক না হয় এবং সে হজ্ব না করে মারা যায়, তবে তার ইচ্ছা চাই সে ইয়াহুদী হয়ে মারা যাক বা খ্রিস্টান হয়ে মারা যাক। তাতে আমার কোনো পরওয়া নেই।’ (সুনানে বাইহাকী, খণ্ড ৪, হাদীস নং ৩৩৪)

বাইতুল্লাহ শরীফের হজ্ব, কালেমা, নামায, রোযা ও যাকাতের মতো ইসলামের একটি অন্যতম রুকন। হযরত রাসূলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম ইরশাদ করেন, “যার উপর হজ্ব ফরয হয়েছে সে হজ্ব আদায় না করে শুধু নামায, রোযা এবং যাকাত আদায় করলে তার নাজাতের জন্য যথেষ্ট হবে না।”

তালবিয়া পড়া সুন্নাত

তালবিয়া নিম্নরূপ

لَبَّيْكَ اَللّٰهُمَّ لَبَّيْكَ , لَبَّيْكَ لَاشَرِيْكَ لَكَ لَبَّيْكَ اِنَّ الْحَمْدَ وَالنِّعْمَةَ لَكَ وَالْمُلْكَ, لَا شَرِيْكَ لَكَ

অর্থ : আমি হাযির! হে আল্লাহ! আমি হাযির। তোমার কোনো শরীক নেই, আমি হাযির। নিশ্চয়ই সমস্ত প্রশংসা ও নিয়ামত তোমারই, আর সকল রাজত্বও তোমারই, তোমার কোনো শরীক নেই।

হজ্ব মোট ৩ (তিন) প্রকার

১.      হজ্বে তামাত্তু।   ২. হজ্বে কিরান।   ৩. হজ্বে ইফরাদ।

হজ্বের ফরয ৩টি

১.      ইহরাম বাঁধা। ২. উকূফে আরাফাহ।  ৩. তাওয়াফে যিয়ারাত।

হজ্বের ওয়াজিব ৬টি

১.      উকূফে মুযদালিফা।

২.     কঙ্কর মারা।

৩.     সাফা-মারওয়ার মধ্যে সাঈ করা।

৪.     কুরবানী করা।

৫.     মাথা মুণ্ডিয়ে বা চুল খাটো করে হালাল হওয়া।

৬.     তাওয়াফে বিদা।

হজ্বের সুন্নাতসমূহ

হজ্বের অনেকগুলো সুন্নাত রয়েছে, নিম্নে কয়েকটি বর্ণনা করা হলো

১. মক্কার বাইরের লোকদের মধ্যে যারা হজ্বে ইফরাদ ও হজ্বে ক্বিরান আদায় করেন তাদের জন্য তাওয়াফে কুদূম করা।

২. তাওয়াফে কুদূমের ক্ষেত্রে রমল করা (অর্থাৎ ছোট ছোট কদমে দ্রুতবেগে হেঁটে তেজোস্বিতা প্রকাশ করা এবং পাহলোয়ানের মতো বুক ফুলিয়ে কাঁধ দুলিয়ে বাহাদুরী প্রদর্শন করে তাওয়াফ করা)। যদি এই তাওয়াফে রমল না করা হয়, তবে তাওয়াফে যিয়ারত অথবা তাওয়াফে বিদার ভিতর রমল করতে হবে।

৩. ইমামের জন্য তিন জায়গায় খুৎবা প্রদান করা।

৪. (ক) ৭ যিলহজ্ব মক্কা মুকাররামায়,

(খ) ৯ যিলহজ্ব আরাফাতের ময়দানে।

যোহর ও আসরের নামাযকে যোহরের ওয়াক্তে একত্রে আদায় করার পূর্বে; আরাফায় উপস্থিত হওয়ার সঙ্গে সঙ্গে নয়।

(গ) ১১ যিলহজ্ব মিনায়।

৫. ৮ যিলহজ্ব যোহরসহ পাঁচ ওয়াক্ত নামায মিনায় আদায় করা।

৬. ৯ যিলহজ্ব তারিখে (অর্থাৎ ৮ যিলহজ্ব দিবাগত রাতে) মিনায় রাত্রি যাপন করা।

৭. ৯ যিলহজ্ব সূর্যোদয়ের পর মিনা থেকে আরাফার ময়দানে  গমন করা।

৮. আরাফার ময়দান থেকে সূর্যাস্তের পর ইমামের রওয়ানা হওয়ার পরে রওয়ানা করা।

৯. আরাফা থেকে প্রত্যাবর্তনের পথে মুযদালিফায় রাত্রি যাপন করা।

১০. আরাফায় গোসল করা।

১১. মিনার কাজ-কর্ম সম্পাদনকালে মিনায় রাত্রি যাপন করা।

১২. মিনা থেকে প্রত্যাবর্তনকালে ‘মুহাসসাব’ নামক উপত্যকায় অতি অল্প সময়ের জন্য হলেও যাত্রাবিরতি করা।

১৩. ১০ তারিখে শুধু জামরায়ে আকাবায় পাথর নিক্ষেপ করা। ১১, ১২ ও ১৩ যিলহজ্ব তিনটি জামারাতে কঙ্কর নিক্ষেপের ক্ষেত্রে ধারাবাহিকতা রক্ষা করা। অর্থাৎ, প্রথমে জামরায়ে উলা, তারপর জামরায়ে উসতা এবং সর্বশেষে জামরায়ে আকাবায় কঙ্কর নিক্ষেপ করা। (আলমগীরী-১/২৩৪)

ইহরামের সুন্নাত ৯টি

১. হজ্বের মাসসমূহের কোনো একদিনে ইহরাম বাঁধা।

২. নিজ দেশের মীকাত ইহরাম বাঁধা অবস্থায় অতিক্রম করা।

৩. ইহরামের পূর্বে গোসল অথবা উযূ করা।

৪. চাদর এবং লুঙ্গি ব্যবহার করা।

৫. দুই রাক‘আত নফল নামায আদায় করা।

৬. চার শ্বাসে তালবিয়া পাঠ করা।

৭. তিনবার তালবিয়া পাঠ করা।

৮. উচ্চৈঃস্বরে তালবিয়া পাঠ করা।

৯. ইহরামের নিয়্যত করার পূর্বে শরীরে সুগন্ধি ব্যবহার করা।

আরে জানতে ক্লিক করুন

রূহানী শক্তি

আমাদের ইউটিউব চ্যানেল রাহে সুন্নাত মিডিয়া

https://youtu.be/JzUwd-EUYW0

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *